🏍 ইলেক্ট্রিক বাইকে কিভাবে বেশি মাইলেজ পাবেন

  Date: 2020-02-10    Views: 402





আপনি যদি ইলেক্ট্রিক বাইক কেনার কথা চিন্তা করেন অথবা ইতোমধ্যে কিনে ফেলেছেন তাইলে আপনাকে অবশ্যই ভাল মাইলেজ পাওয়ার জন্য চিন্তা করতে হবে কিন্তু ইলেক্ট্রিক বাইকে আপনি ফুয়েল বা তেল দিয়ে মাইলেজ মাপতে পারবেন না বরং একচার্জে সর্বোচ্চ কতদূর যেতে পারে সেটাই মাইলেজ। তাই আপনি আমাদের এই সাধারন কিছু টিপস খেয়াল করতে পারেন যা আপনাকে একচার্জে সর্বোচ্চ পথ পাড়ি দিতে অনেকটাই সহায়তা করবেঃ

১। পরিপুর্ন চার্জ করুনঃ

আপনি যখন আপনার বাইকের ব্যাটারি চার্জ দিচ্ছেন, খুব আন্তরিকতার সাথে খেয়াল করবেন যেন আপনার বাইকের ব্যাটারিটা পরিপুর্ন চার্জ হউয়ার পরেই আনপ্লাগ করা হয়। একইসাথে খেয়াল রাখবেন পরিপুর্ন চার্জ হউয়ার পরেও যেন প্লাগ-ইন না করা থাকে এতে আপনার বাইকের ব্যাটারির ক্ষতি হউয়ার সম্ভাবনা থাকে। মনে রাখবেন আপনার ইলেক্ট্রিক বাইকের ব্যাটারিই হলো এই বাইকের মুল অংশ এবং আপনাকে বেশিরভাগ যত্ন ব্যাটারিকে কেন্দ্র করেই নিতে হবে।

২। চাকায় সঠিক পরিমানে বাতাস রাখুনঃ

আপনাকে এই ব্যাপারটায় সতর্ক থাকতে হবে যে আপনার বাইকের চাকায় প্রয়োজনীয় পরিমানে বাতাস আছে কি না। আপনি এই প্রয়োজনীয় পরিমানের বেশি বাতাস রাখতে পারবেন না আবার কমও রাখতে পারবেন না। কম বা বেশি যেটাই হউক না কেন তা আপনার ব্যাটারীর চার্জ দ্রুত নষ্ট করে দেবে।

৩। চাকাগুলার স্বভাবিক ঘুর্নন নিশ্চিত করনঃ

বাইক নিয়ে বের হউয়ার আগে আপনার উচিত হবে আপনার বাইকের চাকা দুটা স্বাভাবিক ঘুর্নন ঠিক আছে কি না কারন চাকায় যদি জ্যাম থাকে তাহলে আপনি যেমন বাইক চালাতে গিয়ে বিরক্ত হবেন ঠিক একই সাথে ব্যাটারির চার্জও তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যাবে।

৪। পিক আপের সাথে সঠিক বোঝাপাড়াঃ

এই ব্যাপারটা খুব সিরিয়াস যখন আপনি একটি ইলেক্ট্রিক বাইক চালাচ্ছেন। আপনাকে অবশ্যই আপনার বাইকের সাথে বেশ ভাল বোঝাপাড়া থাকতে হবে বিশেষত আপনার বাইকের পিক আপের সাথে কারন তা যদি না থাকে তবে হুটহাট উচ্চগতি আপনাকে যেমন ঝুকির মধ্যে ফেলবে ঠিক তেমনই ব্যাটারির ক্ষতিও অনিবার্য।

৫। হঠাত ব্রেক এবং হঠাত উচ্চগতি পরিহার করুনঃ

বাইক চালানোর সময় আপনাকে অবশ্যই পথের দিকে ফোকাস রাখতে হবে অতি মনযোগের সাথে তা না হলে আপনাকে হঠাতই ব্রেক কষে দাঁড়ানো লাগতে পারে আবার নতুন করে গতি উঠয়ে চলতে হতে পারে যা আপনার বাইকের ব্যাটারি এবং চার্জ দুটো জন্যেই ক্ষতিকর।

৬। পারত পক্ষে সহ-রাইডার নেওয়া বাদ দিনঃ

আপনাকে সবসময় মাথায় রাখতে হবে যে আপনার ইলেক্ট্রনিক বাইক একটি কমিউটার বাইক এবং যতটা কম ওজন এতে বহন করবেন ততটা বেশি মাইলেজ পাবেন। একথা সত্য যে আপনি চাইলেও এটা পুরোপুরি না করতে পারবেন না কিন্তু আমাদের পরামর্শ থাকবে কোন সহযাত্রী না নেওয়ার।

৭। কম ওজন, বেশি মাইলেজঃ

বাইকে অতিরিক্ত মালামাল বহন করাটাও আমাদের রকটা নিত্যনৈমত্তিক ব্যাপার কিন্তু সেটা যদি হয় ফুয়েল চালিত বাইকে তাইলে ঠিক আছে কিন্তু আপনি যখন ইলেক্ট্রিক বাইক চালাচ্ছেন সেখানে আপনাকে এই ব্যাপ্রে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে যে আপনি যত কম ওজন বহন করবেন তত বেশি মাইলেজ পাবেন।

৮। সবসময় ভাল রাস্তায় বাইক চালানোর চেষ্টা করুনঃ

এই ব্যাপারটা আমাদের দেশের প্রেক্ষিতে খুবই সাধারন কারন আপনি চাইলেও অনেক সময় ভাল রাস্তা পাবেন না সেক্ষেত্রে আপনাকে দেখেশুনে ভাল অংশের উপর দিয়ে চালিয়ে যেতে হবে কারন রাস্তা খারাপ হলে আপনাকে বারবার ব্রেক করতে হবে এবং আবার গতি উঠাতে হবে যা আপনার সময় নষ্ট করবে এবং ব্যাটারির ক্ষতি করবে।

৯। সাসপেনশনের পারফরমেন্সের দিকে খেয়াল রাখবেনঃ

সবশেষে আপনাকে সসপেনশনের পারফরমেন্স খেয়াল রাখতে হবে যা শুধুমাত্র আপনাকে আরাম নিশ্চিত করে না বরং আপনার স্বাভাবিক পথ চলাও নিশ্চিত করে। মনে রাখবেন, আপনি যখনই আপনার বাইকে হঠাত করেই গতি বাড়িয়ে দিচ্ছেন তখনই আপনার বাইকের ব্যাটারিতে প্রেসার পড়ছে এবং চার্জের লেভেল নিচে দিকে যাচ্ছে।

তাই উপরোক্ত সকল বিষয়গুলা মাথায় রেখে আপনি আপনার ইলেক্ট্রিক বাইক কতটা যত্নের সাথে ব্যবহার করবেন তার একটি ধারনা স্পষ্টত পেয়ে যাচ্ছেন। অল্প কথায় বলতে গেলে আপনাকে আপনার বাইকটাকে ভালবাসতে হবে এবং ঠিকঠাক যত্ন নিতে হবে।